কোনো বিতর্কিত ব্যক্তি সদস্য হতে পারবে নাঃ ওবায়দুল কাদের

6150

Published on মার্চ 4, 2020
  • Details Image

আওয়ামী লীগের নতুন প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ এবং সদস্য নবায়নের কার্যক্রমে কোনো বিতর্কিত ব্যক্তি সদস্য হতে পারবে না বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এছাড়া বর্তমানে দলের প্রাথমিক সদস্য আছেন এমন ব্যক্তি যদি বিতর্কিত হন, তাহলে তিনিও দলের সদস্যপদ হারাবেন বলে জানান তিনি।

বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে জেলার নেতাদের সদস্য সংগ্রহের বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করতে গিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিতদের বাদ দিতে ইতোমধ্যে জেলা পর্যায়ে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে, যাতে বিতর্কিত কেউ প্রাথমিক সদস্য হতে না পারে।

‘আমাদের নতুন সদস্য সংগ্রহ বা নবায়ন কার্যক্রমে বিতর্কিত ব্যক্তিদের পরিহার করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছি সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ভূমি দখলকারী, মাদক ব্যবসায়ী, স্বাধীনতাবিরোধী অশুভ শক্তি এরা আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না। সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তি আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না। এই মর্মে সার্কুলার পাঠিয়ে জেলা পর্যায়ে নির্দেশনা আছে।’

আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য কারও বিরুদ্ধে বিতর্ক থাকলেও তাদের সদস্যপদ নবায়ন করা হবে না জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, বিতর্কমুক্তদের দলের প্রাথমিক সদস্যপদ দেয়া হবে।

‘মুজিববর্ষে’ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আসা নিয়ে বিএনপির বিরোধিতা সম্পর্কে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে ভারতের যে অবদান তাদের প্রতিনিধিত্ব থাকতেই হবে। নরেন্দ্র মোদি ভারতের প্রতিনিধি হিসেবেই আসবেন।’

‘আমাদের ক্ষামতার উৎস জনগণ। ভারত আমাদের বন্ধু। এখানে দাসত্বের কোনো বিষয় নেই। বিএনপি ক্ষমতার জন্য দাসত্বের জন্য প্রস্তুত। তার প্রমাণ হলো, এই নরেন্দ্র মোদি যখন নির্বাচিত হলেন ঢাকায় ভারতীয় দূতাবাসের অফিস খোলার আগেই বিএনপির প্রতিনিধিরা হাজির হয়েছিলেন ফুল নিয়ে। এখন তাদের লজ্জা করে না নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করতে।’-যোগ করেন সেতুমন্ত্রী।

নতুন সদস্য সংগ্রহের বই জেলার নেতাদের হাতে তুলে দেয়ার পাশাপাশি দলের সংশোধিত গঠনতন্ত্র ও ঘোষণাপত্র তুলে দেয়া হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সম্মেলন শেষ হওয়ার পরপরই এই কাজটি দ্রুততম সময়ে সম্পন্ন করতে পেরেছি। আজ থেকে যাত্রা শুরু করলাম। সারা দেশের পর্যায়ক্রমে জেলাগুলো সংগ্রহ করবে। তারপর জেলার অনুমতি নিয়ে উপজেলা পর্যায়ে সদস্য সংগ্রহের বই এবং ঘোষণাপত্র ও গঠনতন্ত্র সংগ্রহ করবে।’

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয় সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত