২৮ হাজার ২০০ মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন নোয়াখালী পৌর মেয়র

1873

Published on মে 22, 2020
  • Details Image
  • Details Image
  • Details Image

নোয়াখালীর পৌর মেয়র এবং শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদ উল্ল্যাহ্ খান সোহেলের ব্যক্তিগত উদ্যোগে নোয়াখালী পৌরসভার আওতাধীন ০৯টি ওয়ার্ডের অসহায়, দুঃস্থ ২৮ হাজার ২০০ সাধারন মানুষ, ১২৬টি মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খতিব, ২৫০টি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে নগদ অর্থ এবং খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়েছে।

৩য় ধাপে নোয়াখালী পৌরসভার আওতাধীন ০৯টি ওয়ার্ডের অসহায়, দুঃস্থ ৭০০০(সাত হাজার) এর অধিক সাধারণ মানুষের মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ৩’রা মে থেকে শুরু হওয়া এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শেষ হয় ৫’ই মে।

৯ই মে (শনিবার) ২৫০টি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে নগদ অর্থ এবং খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। প্রত্যেক অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা কে নগদ ১ হাজার টাকা এবং প্রত্যেকের পরিবার প্রতি ৫ কেজি চাল, ২ কেজি ডাল, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ লিটার তেল, ৩ কেজি আলু ও ১টি করে সাবান জনপ্রতি বিতরণ করা হয়।

১৮ মে ৭ হাজার পরিবারের মাঝে এবং ১৯ মে পৌরসভার ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড়ে ১২০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়টা বিতরণ করেন  শহীদ উল্ল্যাহ্ খান।

এর আগে দেশে লকডাউন পরিস্থিতিতে পড়া নোয়াখালী পৌর এলাকার সকল ওয়ার্ডের প্রায় ১০,০০০(দশ হাজার) এর অধিক গরীব, দুঃস্থ মানুষের মাঝে মেয়র সোহেল ব্যক্তিগত সহযোগীতায় ত্রান বিতরণ করেন গত ৫ই এপ্রিল। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে প্রত্যেক পরিবারের জন্যে দেয়া হয় ০৫ কেজি চাল, ০১ কেজি ডাল, ০১ কেজি পেঁয়াজ, ০২ কেজি আলু, ০১ লিটার তেল ও ৪টি করে স্যাভলন সাবান। এছাড়া প্রতিদিন পৌর কার্যালয়ের সামনে উপস্থিত অসহায় মানুষের মাঝে নানান খাদ্য সামগ্রী এবং নগদ টাকা বিতরণের কাজ চলমান রয়েছে।

পবিত্র মাহে রমজানের শুরু থেকেই পৌরসভার খেঁটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ, পরিবহন শ্রমিক সহ থেকে শুরু করে দুঃস্থ মানুষের মাঝে মেয়র নিজে উপস্থিত থেকে ইফতার বিতরণ করছেন এবং এই ইফতার বিতরণ কার্যক্রম পুরো রমজান মাস জুড়েই অব্যাহত থাকবে।এছাড়া রমজান উপলক্ষে পৌরসভার ১২৬ টি মসজিদের ইমাম,মুয়াজ্জিন ও খতিবদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়। নোয়াখালী জেলার অভাবগ্রস্থ বিভিন্ন নেতা-কর্মীদের মাঝেও খাদ্য সামগ্রী প্রদান অব্যাহত রয়েছে। লকডাউন পরিস্থিতে নোয়াখালী শহরের বিভিন্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝেও খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়। এছাড়াও সরকারী বরাদ্দকৃত প্রায় ২৮ মেট্রিক টন চাল প্রত্যেক ওয়ার্ডের দুঃস্থ মানুষদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিতরণ করেছেন মেয়র শহীদ উল্ল্যা খান সোহেল।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণের অংশ হিসেবে মেয়র সোহেল এর উদ্যোগে পৌরসভার নিজস্ব হটলাইন নাম্বার (০১৭১১১৩৯১৪৪) চালু করা হয়। এই হটলাইন নম্বরে আগত ফোন কলের মাধ্যমে পৌর এলাকার গরীব এবং মধ্যবিত্ত সহ নানান শ্রেণীর মানুষদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাহা এখনো চলমান রয়েছে।

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের শুরু থেকেই নোয়াখালী পৌরসভা এলাকাধীন শহরের ০৯ টি ওয়ার্ডেই পৌর মেয়র এবং শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদ উল্ল্যাহ্ খান সোহেল এর ব্যক্তিগত সহায়তা এবং নিজস্ব উদ্যোগে পৌরসভার পক্ষ থেকে নানাবিধ কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়। কার্যক্রমের শুরুতেই করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ এবং সাধারণ মানুষের যে কোন প্রয়োজনে পৌরসভার পক্ষ থেকে খোলা হয় ০৫ টি হটলাইন নম্বর।গত ২৩শে মার্চ থেকে শুরু হওয়া ২৪ ঘন্টা হটলাইন কার্যক্রম এখনো চলমান। মেয়র সোহেল এর নিজ উদ্যােগে পৌরসভার পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে নেয়া হয় “আসুন হাত ধুই” কর্মসূচি।

মেয়র শহীদ উল্ল্যা খান সোহেল এর ব্যক্তিগত উদ্যোগে নোয়াখালী পৌরসভার পক্ষ হতে নোয়াখালী জেলা শহরে ২০,০০০(বিশ হাজার) পরিবারের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। গত ২৪শে মার্চ নোয়াখালী পৌরসভার বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল হোসেন কচি কনভেনশন সেন্টারে উক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার সহ বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ কাজের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করা হয়। মেয়র সোহেলের উদ্যোগে গঠিত স্বেচ্ছাসেবক টিমের সদস্যরা পৌরসভার ০৯টি ওয়ার্ডেই সকল পরিবারের মাঝে ঘরে ঘরে হ্যান্ডস্যানিটাইজার সহ বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী এবং সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।

করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকে জেলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গা এবং পৌরসভার বিভিন্ন সড়ক ও স্থানসমূহে জীবানুনাশক স্প্রে ছিঁটানো হয় এবং বর্তমানেও এই কার্যক্রম চলমান আছে।

এছাড়াও, করোনা ভাইরাস সংক্রমন থেকে রক্ষার জন্যে মেয়র শহীদ উল্ল্যাহ খান সোহেল এর ব্যক্তিগত উদ্যোগে নোয়াখালী জেলার কর্মরত সাংবাদিকদের মাঝে সুরক্ষা সামগ্রী যেমন- মাস্ক, গ্লাপস, হ্যান্ডস্যানিটাইজার, হ্যান্ডবার এবং লকডাউন কার্যক্রমে নিয়োজিত নোয়াখালীতে অবস্থানরত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্য দের মাঝে ৫০টি পিপিই বিতরণ করা হয়।

নোয়াখালী পৌর এলাকার সর্বশ্রেণীর মানুষের জন্যে নেয়া নিজের ব্যক্তিগত নানান উদ্যোগ এবং সামগ্রীক সহায়তার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাইলে মেয়র শহীদ উল্ল্যা খান সোহেল বলেন, যতদিন এই দূর্যোগ থাকবে ততদিন নোয়াখালীর পৌর এলাকার মানুষের সাথে আছি এবং থাকবো । নোয়াখালীর পৌর এলাকার মানুষের জন্যে ত্রান বিতরণ সহ সামগ্রীক সহায়তা দেশ নেত্রী শেখ হাসিনার তরফ থেকে উপহার হিসেবে পৌঁছে দিবো।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত