সজীব ওয়াজেদ জয় দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য এবং দেশকে আরো সামনে এগিয়ে নেয়ার জন্য আওয়ামী লীগকে পুনরায় সুযোগ দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন।

১৪ই সেপ্টেম্বর সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফর্মেশন (CRI) এর উদ্যোগে চট্টগ্রামে আয়োজিত Let’s Talk অনুষ্ঠানে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন “উন্নয়নের জন্য আওয়ামী লীগের বিকল্প নেই”।
এই অনুষ্ঠানে জয় চট্টগ্রামের বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে মতবিনিময় করেন। প্রায় ২০০ উদ্যমী তরুণ এবং বাংলাদেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে আগ্রহী ছাত্র-ছাত্রী এই অনুষ্ঠানে নেন।
তরুণদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন, “বাংলাদেশ গত সাড়ে চার বছরে অভূতপুর্ব সাফল্য অর্জন করেছে”। তিনি আরো বলেন ক্ষমতাসীন দল সংবিধান মেনে নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে চায় এবং তারা বিদ্যমান রাজনৈতিক অস্থিরতা এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে সমস্যার সমাধান নিয়ে সংলাপে বসতে প্রস্তুত।
নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময়কালে জয় বলেন তরুন সমাজ একটি সন্ত্রাসমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত, সহনশীল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে বাস করতে চায়। তিনি দেশকে তরুনসমাজের জন্য উপযুক্ত করে গড়ে তলার জন্য সকল রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের কাছে আহবান জানান।

 

ব্যবসায় প্রতিযোগিতা সক্ষমতা সূচকে আট ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশে। সোমবার বাংলাদেশে প্রকাশিত বিশ্ব প্রতিযোগিতা সক্ষমতা প্রতিবেদন-২০১৩ এ বলা হয়েছে, “ব্যবসায় প্রতিযোগিতা সক্ষমতার দিক থেকে বিশ্বের ১৪৮টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১১০। আগের বছরের চেয়ে বাংলাদেশ এগিয়েছে আট ধাপ। ২০১২ সালে ১৪৪টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১১৮তম।”

গত এক বছরে অবকাঠামো, সামষ্টিক অর্থনীতির স্থিতিশীলতা ও বাজার আকার সূচকে বাংলাদেশ ব্যাপক উন্নতি করেছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
প্রতিবেশী দেশ ভারত ও পাকিস্তান এই সূচকে পিছিয়ে পড়লেও আওয়ামী লীগ সরকারের নেতৃত্বে বাংলাদেশ এ্গিয়ে গেছে আট ধাপ। একধাপ আওয়ামী লীগ সরকারে বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপের কারণেই বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দাসহ নানা প্রতিকূলতা সত্বেও এই বিরল অর্জন সম্ভব হয়েছে বলে মনে করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

 

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দেশের উন্নতি হয়, দেশের মানুষ শান্তিতে থাকে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী। বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির নব-নির্বাচিত সদস্যরা আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে দেখা করতে গেলে শেখ হাসিনা আরও বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় থাকে তখন তারা লুটপাট আর মানুষ খুন করে।

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছে- সে কথা মনে রেখেই তার সরকার দেশ পরিচালানা করছে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।
বর্তমান সরকারের সময়ে দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে সরকারের নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের বিবরণ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আবার ক্ষমতায় আসলে শস্যভাণ্ডার হিসাবে বরিশালের সুনাম ফিরিয়ে আনা হবে।
সাক্ষাতকালে আইনজীবী নেতারা শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন। পরে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য হারুনর রশিদ খানের নেতৃত্বে সিন্ডিকেট সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন।

মোবাইল ফোনে তৃতীয় প্রজন্মের সেবা দিতে নতুন চার টেলিকম অপারেটরকে থ্রিজি লাইসেন্স দিয়েছে সরকার। লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- গ্রামীণফোন, এয়ারটেল, বাংলালিংক ও রবি। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)গতকাল রাজধানীর একটি হোটেলে এই নিলামের আয়োজন করে। এর ফলে ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকল্প বাস্তাবায়নে আরও একধাপ এগোলো আওয়ামী লীগ সরকার।

এর আগে গত বছর দেশের প্রথম থ্রিজি সেবার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রীয় টেলিকম অপারেটর টেলিটকই শুধু এতোদিন এই সেবা দিতো। এখন এই বাজারে যোগ দিলো আরও চার প্রতিষ্ঠান। ফলে প্রতিযোগিতা বাড়বে আর তার সুবিধা পাবে ব্যবহারকারীরা; কম খরচে উন্নতমানের সেবা পাবে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীরা।
আগামী মাস থেকেই থ্রিজি সেবা দেওয়া করতে পারে নতুন লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো। থ্রিজি চালু হলে নতুন যেসব সুবিধা পাওয়া যাবে, তা হলো-
- ভিডিও কল, ভিডিও কনফারেন্স
- ইন্টারনেটে ভিডিও দেখা
- মোবাইল ফোনে টেলিভিশন দেখা
- দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংযোগ
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে যে, প্রগতির শেষ নেই; সচল রাখতে হবে উন্নয়নের চাকা। আর কাই থ্রিজি চালু হবার পর, আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য এখন দেশের মানুষের জন্য ফোর-জি বা চতুর্থ প্রজন্মের মোবাইল ফোন সেবা চালু করা।

News 11০১ সেপ্টেম্বর ২০১৩, ১৭ ভাদ্র ১৪২০
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পোশাক শ্রমিকদের উন্নত জীবনের জন্য সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দিয়ে এই খাতের ক্ষতি হতে পারে এমন কিছু না করার জন্য তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তাঁর সরকার পোশাক শ্রমিকদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইতোমধ্যে ওয়েজ বোর্ড গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং বোর্ডের সুপারিশ অনুযায়ী তাদেরকে পর্যাপ্ত বেতন প্রদানের জন্য মালিক পক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।

৩১ আগষ্ট ২০১৩, ১৬ ভাদ্র ১৪২০

সংবিধান সমুন্নত রাখার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সাংবিধানিক প্রক্রিয়া বজায় রাখা ছাড়া গণতন্ত্র টিকে থাকতে পারে না। তিনি বলেন, 'সাংবিধানিক প্রক্রিয়া বজায় রাখা ছাড়া গণতন্ত্র রক্ষা করা যাবে না। তাছাড়া, গণতন্ত্র রক্ষা করা ছাড়া জনগণের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা আসবে না। প্রধানমন্ত্রী বলেন,সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে সংবিধান অনুযায়ী দেশ পরিচালনা করা। তিনি বলেন, 'আমরা চাই না দেশ আবার অসাংবিধানিকভাবে পরিচালিত হোক।' বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে উন্নতি হয়, দেশ এগিয়ে যায় আর বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশ পিছিয়ে যায় । "অনেক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছি। কিছু বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। আগামীতে ক্ষমতায় আসতে পারলে রূপকল্প ২০২১ অনুযায়ী ক্ষুধামুক্ত দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে পারবো।

৩১ আগষ্ট ২০১৩, ১৬ ভাদ্র ১৪২০

আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, তত্ত্ববধাযক সরকার দাবি বিএনপির রাজনৈতিক কৌশল। সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করার জন্যই তারা আলোচনার কথা বলছে। জাতীয় নির্বাচন নিয়ে তাদের আলোচনার কিছুই নেই। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার দুই পুত্র তারেক ও কোকোর মানি লন্ডারিং মামলা থেকে অব্যাহতি পাওয়ার সম্ভাবনা নেই দেখেই তারা সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করতে চাইছে। তারেক-কোকোর মামলা বিদেশে হযেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন,এ ব্যাপারে সরকারের কিছুই করার নেই। হানিফ বলেন, বিএনপি আসলে সাধারণ মানুষের ম্যান্ডেট নিয়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার চিন্তা ভাবনা করেনা। কুট-কৌশল আর ষড়যন্ত্রের মধ্যদিয়ে তারা ক্ষমতায় আসতে অভ্যস্ত। হানিফ বলেন, কোকোর পাচারকৃত অর্থ ফেরত আসার পর তাদের উচিত ছিল লজ্জা প্রকাশ করে জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া। মাহবুব-উল- আলম হানিফ আজ জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে বিআরটিসি শ্রমিক কর্মচারি লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

News 2৩১ আগষ্ট ২০১৩, ১৬ ভাদ্র ১৪২০
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে কখনোই বঞ্চিত হয়নি,তাই আরো একবার ক্ষমতায় আসার জন্য ভোট চাই। তিনি বলেন, '২০০৮ সালের নির্বাচনে আপনারা আমাদের ভোট দিয়েছেন এবং আপনারা বঞ্চিত হননি। আমরা দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ মুক্ত দেশ গঠন করার লক্ষ্যে পুনরায় আপনাদের ভোট চাই।'

TOP