অনির্বাচিত সরকার, গণতন্ত্রের পুনরুজ্জীবন

2007 July 16 02

দুর্নীতি, সন্ত্রাসের উত্থান, জঙ্গীবাদ সমৃদ্ধ ৬ বছরের অপশাসন এবং মৃতপ্রায় জনপ্রিয়তা নিয়ে উদ্বিগ্ন তৎকালীন বি এন পি-জামাত সরকার ২০০৬ সালে একটি পুতুল নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে জাল ভোটার তালিকা প্রণয়ন করে যাতে লাখ লাখ ভুয়া ভোটার অন্তর্ভুক্ত ছিল। আওয়ামী লীগ এবং সমমনা দল গুলো একটি পুনর্গঠিত ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে একটি নতুন ভোটার তালিকা প্রণয়ন করে।

বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে মুক্তি

Impunity-BN

বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে মুক্তি পেতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ এ সংঘটিত গত শতাব্দীর অন্যতম নিকৃষ্ট রাজনৈতিক হত্যাকান্ড, যাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তাঁর পরিবারের প্রায় সব সদস্য নিহত হন, এর বিচার শেষ করেছেন। এই প্রক্রিয়া শুরু হয় ১৯৯৬ সালে যখন খুনীদের অব্যাহতি দেয়া কুখ্যাত ইনডেমনিটি আদেশ সংসদে বাতিল করা হয়। ২০১০ সালের ২৮ জানুয়ারি ৫ জন খুনীকে দন্ডাদেশ দেওয়ার মাধ্যমে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

ডিজিটাল বাংলাদেশ

Digital Bangladesh

২০০৯ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ ২০২১ সালের মধ্যে প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ শুরু করেন। গত ৭ বছরে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে দেশ অনেকদূর এগিয়ে গেছে। তথ্য ও প্রযুক্তির সব খাতে বাংলাদেশ অভূতপূর্ব উন্নতি করেছে।

সংগ্রাম ও অর্জনের ৬৫ বছর

al flag  

বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন ও বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ তার যাত্রা শুরু করেছিল এই পদ্মা-মেঘনা-যমুনা অববাহিকায় বসবাসকারী মানুষের রাজনৈতিক ভাবনার প্রতীক হিসেবে।

আওয়ামী লীগের যাত্রা ও বিরোধী দলের উত্থান

Inception

১৯৪৭ সালে মুহম্মদ আলী জিন্নাহর দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে সৃষ্টি হয় ভারত ও এবং পাকিস্তান নামের একটি কৃত্রিম রাষ্ট্র ধর্মভিত্তিক বিভক্তির মাধ্যমে সৃষ্ট পাকিস্তান ছিল দুই খন্ডে বিভক্ত- পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান। 

ভাষা আন্দোলন

LM

পাকিস্তানের তৎকালীন শাসকগোষ্ঠীর অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে বাঙালি প্রথম বিদ্রোহ রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে। সংখ্যাগরিষ্ঠের ভাষা বাংলার পরিবর্তে পূর্ব পাকিস্তানের মানুষের উপর উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে চাপিয়ে দিতে চেয়েছিল পশ্চিম পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী। 

যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন

smj

১৯৫৪ সালের মার্চ মাসে, পাকিস্তানের প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচন যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন হিসেবেই অধিক পরিচিত। 

অসাম্প্রদায়িকতার পথে একধাপ

5896199853 c811f37470 z

জন্মলগ্ন থেকেই আওয়ামী লীগ একটি অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল। এর নামের সাথে মুসলিম শব্দটি যোগ করা হয় রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে। 

সরকার গঠন, দলে ভাঙন ও ক্ষমতা হরণ

Formation

যুক্তফ্রন্ট সরকার ভেঙে যাওয়ার পর, ১৯৫৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পূর্ব পাকিস্তানের তৎকালীন গভর্নরের আহ্বানে সাড়া দিয়ে প্রাদেশিক সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। 

আইয়ুব বিরোধী আন্দোলন

4

১৯৫৮ সালের ৭ অক্টোবর প্রেসিডেন্ট ইস্কান্দার মির্জা পাকিস্তানে সামরিক শাসন জারি করেন। এর ২০ দিনের মাথায় পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর তৎকালীন প্রধান আইয়ুব খান পাল্টা অভ্যুত্থান ঘটিয়ে ক্ষমতা দখল করেন। 

১৯৬৪ সালের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা

422957 111412782322528 1496196918 n১৯৬৪ সালে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জের আদমজীসহ বিভিন্ন এলাকায় মুসলিম ও হিন্দুদের মাঝে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে।

ছয় দফা কর্মসূচিঃ বাঙালির ‘ম্যাগনা কার্টা’

6point

১৯৬৫ সালের পাক-ভারত যুদ্ধ বাঙালির চোখ খুলে দেয়। যুদ্ধকালীন সময়ে পূর্ব পাকিস্তান সমগ্র বিশ্ব থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন ছিল। পূর্ব পাকিস্তানের অধিবাসীদের মূলত কোনো সামরিক সহায়তা ও প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ছাড়াই পুরোপুরি ভাগ্যের উপর ছেড়ে দেয়া হয়েছিল। 

আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা এবং ১৯৬৯ সালের গণ-অভ্যুত্থান:

69ছয় দফা দাবির প্রতি ক্রমবর্ধমান জনসমর্থনকে দাবিয়ে রাখতে নতুন এক ফন্দি আঁটেন প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান

১৯৭০ সালের নির্বাচন; আওয়ামী লীগ এর ঐতিহাসিক বিজয়

70aআইয়ুব খানের পর ক্ষমতায় আসেন ইয়াহিয়া খান। এসেই তিনি ডিসেম্বর মাসে সাধারণ নির্বাচনের ঘোষণা দেন।

7march১৯৭০ এর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ব্যাপক সাফল্য পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীকে ভীত করে তোলে। তারা বুঝতে পারে যে বাঙালিরা রাষ্ট্র ক্ষমতায় গেলেই ৬ দফার ভিত্তিতে একটি নতুন সংবিধান প্রণয়ন করবে।

স্বাধীনতা যুদ্ধ এবং স্বাধীন বাংলাদেশঃ

71a

ইয়াহিয়া খান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সাথে আলোচনা শুরু করেন। কিন্তু এই আলোচনা ছিল বাঙালিদের সাথে প্রতারণার এক কৌশলমাত্র। এই আলোচনার ফাঁকে গোপনে পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠী পশ্চিম পাকিস্তান থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র এবং গোলাবারুদ এনে পূর্ব পাকিস্তানে জমা করতে থাকে। ২৫ শে মার্চ মধ্যরাতে পাক সেনাবাহিনী নিরস্ত্র বাঙালিদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। শুরু হয় “অপারেশন সার্চলাইট” নামে ইতিহাসের বর্বরতম গণহত্যার। হত্যাকাণ্ড শুরুর কিছুক্ষণ পরই, ২৬শে মার্চের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। এই ঘোষণাটি ঢাকা এবং চট্টগ্রামে দলের নেতাকর্মীদের কাছে ইপিআর-এর ওয়্যারলেস এর মাধ্যমে গোপনে পৌঁছানোর ব্যাবস্থা করা হয়।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশ পুনর্গঠন

74স্বাধীনতার পর একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনে বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর নেতৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ সরকার নানাবিধ বাধাবিপত্তির সম্মুখীন হয়। পাক বাহিনীর হামলায় যাতায়াত ব্যাবস্থা এবং শিল্প কারখানাগুলো পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়, স্কুল, কলেজ, খাদ্য গুদাম গুলো সম্পূর্ণরূপে পুড়ে যায়।

TOP