বিএনপির ভিশন ২০৩০: অন্তঃসারশূন্য, অস্পষ্ট

 

বিগত ১০ মে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া রাজধানীর একটি ৫ তারকা হোটেলে তাদের তথাকথিত ভিশন ২০৩০ ঘোষণা করেন। বিএনপি ক্ষমতাতে গেলে কি কি কাজ করবেন তার একটা দিক নির্দেশনা দেওয়ার চেষ্টা করেছে তাদের ভিশনে। বিএনপি তাদের ভিশনে যে সমস্ত কথা বলেছে তা তাদের সাম্প্রতিক সহিংস রাজনীতি থেকে জনগণের চোখ ফেরাতে চটকদার ঘোষণা ছাড়া আর কিছু না।

 

'বিগত আট বছরে দেশ-বিদেশে প্রায় দেড় কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। গতবছর রেকর্ড ৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৩১ জন কর্মী বিদেশে গেছেন। ৫ কোটি মানুষ নিন্মবিত্ত থেকে মধ্যবিত্ত শ্রেণীতে উন্নীত হয়েছে। ' - টানা দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার পরিচালনার ৩ বছর পূর্তিতে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

৫ জানুয়ারি নির্বাচনের গুরুত্ব

 

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ পুনরায় দেশ পরিচালনা করার দায়িত্ব লাভ করে দেশের মানুষের কাছে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনা তৃতীয় বারের মত দেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন।

শেখ হাসিনার অঙ্গীকারঃ নিরাপদ অভিবাসন

 

আওয়ামী লীগ সরকার শ্রম অভিবাসনকে একটি উদীয়মান খাত হিসেবে চিহ্নিত করে এটিকে জাতীয় এজেন্ডা হিসেবে বিবেচনায় রেখেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার ২০০৯ সাল থেকে অভিবাসন ব্যবস্থাকে নিরাপদ, সুশৃঙ্খল, নিয়মিত ও দায়বদ্ধ করতে অনেকগুলো উদ্যোগ গ্রহন করেছে। সরকার অভিবাসন ব্যবস্থা সহজ করার লক্ষে স্মার্ট কার্ড প্রবর্তন, বিদেশ থেকে সহজে অর্থ প্রেরণ, শ্রম বাজার গবেষণা সেল গঠন, দক্ষ ও আধা-দক্ষ কর্মী সৃষ্টির জন্য প্রশিক্ষণ এবং অভিবাসিদের জন্য স্বাস্থ্য সুবিধা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছে। দি ইকনমিস্টের ইন্টেলিজেন্স ইউনিট থেকে প্রকাশিত ‘মাইগ্রেশন গভর্নেন্স ইনডেক্স ২০১৬’- তে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের তুলনায় পাঁচটির মধ্যে দুটি সূচকে বাংলাদেশ বেশ ভালো করেছে।

TOP