স্বাধীনতার স্বদেশ আগমন

ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনঃ ৪৯ বছর আগের এই শুভদিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতির পিতা হিসেবে বীরের বেশে বহুমূল্যে কেনা স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখলেন। অথচ তিনি যে ফিরবেনই তার কোনো নিশ্চয়তা ছিল না। ১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১, পরাজিত দখলদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের লজ্জা শুরু। কিন্তু বিজয়ী জাতি বাঙালির মনে জন্ম নেয় চরম উৎকণ্ঠা। ন্যায়নীতি, সভ্য আচরণের কোনো মানদণ্ডে...

১০ জানুয়ারি ১৯৭২: বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বিজয়ের পূর্ণতা

কৃষিবিদ দীপক কুমার বনিক দীপু: ১০ জানুয়ারি ১৯৭২, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বিজয়ের পূর্ণতা আসে এই দিনে। পাকিস্তানের কারাগার থেকে দীর্ঘ সারে নয় মাস পর মুক্তি পেয়ে ৯ জানুয়ারি ১৯৭২, বঙ্গবন্ধু যখন লন্ডনের হিথ্রু বিমানবন্দরে পৌছান, তারপরই বাঙ্গালী জাতি জানতে পারে, তাদের প্রানের নেতা পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছে। মুহুর্তেই সুরের মূর্ছনার মত ছড়িয়ে পরে এই...

স্বাধীনতাকে যারা ব্যর্থ করতে চেয়েছিল আজ তারাই ব্যর্থ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চেয়েছিল, আজ তারাই ব্যর্থ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রোববার আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই সভায় বক্তব্য রাখেন তিনি। ...

১০ জানুয়ারি স্বপ্ন পূরণের মাহেন্দ্রক্ষণ

ড. প্রণব কুমার পান্ডে: ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি ঐতিহাসিক দিন। এই দিনে বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা এবং মুক্তিযুদ্ধের সর্বোচ্চ নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগারে বন্দিদশা থেকে মুক্ত হয়ে সদ্য স্বাধীন দেশের পবিত্র মাটিতে ফিরে আসেন। বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তনের আগে তিনি পাকিস্তানি কারাগারে ভয়াবহ নিষ্ঠুরতার মুখোমুখি হয়েছিলেন, সেখান...

তিনি তো ফিরে আসবেনই

অজয় দাশগুপ্তঃ তিনি বার বার ফিরে এসেছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অন্যায়ভাবে বহিষ্কারের পর ফিরে এসেছেন। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় ফাঁসির রজ্জু ছিন্ন করে ফিরে এসেছেন। ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তির পর ১০ জানুয়ারি স্বাধীন বাংলাদেশে ফিরে এসেছেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাকে হত্যার পর ঘাতকরা দম্ভ করে ‘ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ’ জারি করেছিল। কিন্...

পিতা যেদিন ফিরে এলেন

এম. নজরুল ইসলাম কেমন ছিলো সেই দিনটি- যেদিন ফিরলেন পিতা মুক্ত স্বদেশে, বিজয়ী বীরের বেশে? সেদিন আকাশে যে সূর্য উঠেছিলো, সেই সূর্য কি জানতো যে এক মহান পুরুষ ঐ আলো গায়ে মেখে বিজয়ীর বেশে নিজের দেশে ফিরবেন, মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে? ফিরলেন তিনি, বাঙালির ভালোবাসা ছুঁয়ে। বাঙালি জাতির হৃদয় ভরিয়ে দিয়ে নিজের দেশে ফিরলেন সেই মহাপুরুষ, যাঁর জন্য অপেক্ষায় ছিলো স...

জন্মশতবর্ষে জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের তাৎপর্য

এম. নজরুল ইসলাম: আজ ১০ জানুয়ারি, বাঙালির জীবনের এক ঐতিহাসিক দিন। ১৯৭২ সালের আজকের এই দিনে স্বাধীন দেশের মাটিতে ফিরে আসেন এ দেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, একটি স্বাধীন জাতিরাষ্ট্রের মহান স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের ভেতর দিয়ে যে জাতির মননে স্বাধীনতার বীজমন্ত্র  বুনেছিলেন, সেই দেশের রক্তভেজা মাটিতে তিনি ফিরে এলেন আজকের এই দিনে...

১০ই জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস

আগামীকাল ১০ জানুয়ারি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি পাকিস্তানের কারাগারের নির্জন প্রকোষ্ঠ থেকে মুক্তি লাভ করে ১৯৭২ সালের এই দিনে তাঁর স্বপ্নের স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশে ফিরে আসেন। ঐতিহাসিক ১০ই জানুয়ারি আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের ধারাবা...

১০ জানুয়ারি ১৯৭২ঃ বিজয়ী বাংলার সবুজে ফিরলেন মুক্তির মহানায়ক

বইছিল স্বাধীনতার সুবাতাস। শ্লোগানে মুখরিত চারদিক, আকাশ-বাতাস, জোর গলায় উচ্চারিত হচ্ছে, “জয় বাংলা”, তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দর জুড়ে যেন অনুরণিত হয়ে চলেছে, প্রতিধ্বনিতে একাকার হালকা শীতের আমেজময় সেই ঐতিহাসিক ১০ই জানুয়ারী, ১৯৭২ সাল। বেলা দ্বিপ্রহরের পরপরই হাজার দশেকেরও বেশি সদ্য মুক্তির স্বাদ পাওয়া আবেগে উদ্বেলিত বাঙালি সেখানে জড়ো হয়েছিলেন, যদিও তার...

১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারী স্বদেশে ফিরে রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ

৮ জানুয়ারি ১৯৭২ সালে পাকিস্তানি কারাগার থেকে মুক্তিলাভ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বদেশের মাটিতে পা রাখেন দুই দিন পরে ১০ জানুয়ারী। উপস্থিত জনতার ঢলে ভেসে যাচ্ছিল বিমানবন্দর। বিশাল জনসমুদ্রের সামনে দাঁড়িয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন বঙ্গবন্ধু, নাতিদীর্ঘ ভাষনে জাতিকে দেন দিক নির্দেশনা। নিচে পুরো ভাষণটি তুলে ধরা হলো- --- আমি প্রথমে স্মরণ করি আমার বাংলাদে...

শেখ মুজিবকে ফিরে পেল বাংলাদেশ

সুভাষ সিংহ রায়ঃ আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস বিশেষ মর্যাদার সাথে পালন করে থাকি। গত বছর (৮ নভেম্বর ২০২০) মহান জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অধিবেশনের আয়োজন করা হয়েছিল। অধিবেশনের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারির সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের (তখনকার রেসকোর্স ময়দান) সেই ঐতিহাসিক ভাষণের পুরোটা আবার উপস্থাপন করা হয়েছিল। ১০ জানুয়ারি ব...

আমার দেখা মুজিব

সুফিয়া কামাল: শেখ মুজিবুর রহমান যখন বঙ্গবন্ধু হননি, বলা যেতে পারে তার কিশোর বয়স থেকেই আমি তাকে জানি। সোহরাওয়ার্দীর সঙ্গে তাকে প্রথম দেখি কলকাতায়। তখন ইসলামিয়া কলেজের ছাত্র সে। রাজনীতিতে সোহরাওয়ার্দীর খ্যাতি যখন তুঙ্গে, সেই সময় থেকে ছাত্রকর্মী ছাত্রনেতা হিসেবে মুজিবুর রহমানকে আমি চিনি। নেতা হিসেবে সারাবিশ্বে পরিচিত হয়েছে মুজিবুর রহমান। কিন্তু আমার কাছে আমার ছ...

মুজিবের আগমনি বার্তা যখন ঢাকায়

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তির অনেক আকাঙ্খিত সুসংবাদটি ঢাকায় পৌছলে গােটা বাংলাদেশে এক অবিস্মরণীয় অভূতপূর্ব আনন্দের হিল্লোল বইতে থাকে। স্বাধীন ভুমিতে বিজয়ের আনন্দ যেন তখন কানায় কানায় ভরে গেছে। অগণিত বাঙালি নরনারী অনিশ্চয়তার আবর্তে স্বস্তির সন্ধান পেল। অকূল পাথারে কূল খুঁজে পেল। মুজিব নেই, বিজয়ী হয়েও এতদিন খুশি হতে পারে নি সাড়ে সাত কোটি বাঙালি। মুজিব ছাড়...

১০ জানুয়ারি ১৯৭২ঃ দিল্লী থেকে ঢাকার পথে বঙ্গবন্ধু

দিল্লিতে বঙ্গবন্ধুর যাত্রাবিরতি ছিল সংক্ষিপ্ত। রাষ্ট্রপতি ভবনে সৌজন্য কথাবার্তার পর ব্রিটিশ রাজকীয় বিমানেই তিনি যাত্রা করেছিলেন ঢাকার উদ্দেশে। এ সময় বিমানে বঙ্গবন্ধুর অন্যতম সহযাত্রী ছিলেন ফারুক আহমদ চৌধুরী। তিনি সেই যাত্রার সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিয়েছেন এভাবে: "...দশই জানুয়ারি ১৯৭২-এর সেই অবিশ্বাস্য সকাল। পালাম বিমানবন্দর। আটটা বেজে দশ মিনিট। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর রুপালি কমে...

১০ জানুয়ারির রেসকোর্স ময়দান : উচ্ছ্বাসে উল্লসি ওঠে আকুল আবেগ

১০ জানুয়ারি (১৯৭২) বিকেল ৪.২৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক নৌকার মতো করে নির্মিত ১০০ ফুট দীর্ঘ মঞ্চে স্থাপিত মাইকের সামনে যখন ভাষণ দিতে ওঠেন, তখন তিনি শিশুর মতো কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন; তার দু'চোখ গড়িয়ে অশ্রু পড়ছিল বারবার। কান্না ছিল সেদিনের একমাত্র কণ্ঠস্বর। তিনি কাঁদছিলেন। কাঁদছিল ...

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনঃ কেমন ছিল তেজগাঁও বিমানবন্দর?

১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু লন্ডন ও দিল্লি হয়ে প্রাণের শহর ঢাকা ফিরে আসেন বেলা ১টা ৪১ মিনিটে। ঢাকা অবতরণের পূর্বে কমেট বিমানটি বঙ্গবন্ধুর ইচ্ছার প্রতি শ্রদ্ধাবশত প্রায় ৪৫ মিনিট বিমানবন্দরের ওপর চক্রাকারে ঘুরতে থাকে। ওপর থেকে “সোনার বাংলা” অবলোকন করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধুর এ ফেরা শুধু ফেরা ছিল না-এ ফেরা বাঙালি জাতির সুদীর্ঘ রক্তক্ষ...

ফিরে আসলেন, দেখলেন, জয় করলেন

ড. রাশিদ আসকারীঃ ভেনি, ভিডি, ভিসি(veni, vidi, vici)একটি ল্যাটিন শব্দবন্ধ যার অর্থ: I came; I saw; I conquered. বঙ্গার্থ: আসলাম, দেখলাম, জয় করলাম। রোমান সম্রাট জুলিয়াস সিজার পন্টাসের দ্বিতীয় ফার্নাসেসের বিরুদ্ধে জেলার যুদ্ধে সহজ জয় লাভের পর খৃষ্টপূর্ব ৪৭ অব্দে রোমান সিনেটকে লেখা এক পত্রে শব্দগুলো ব্যবহার করেন। সিজার পরাক্রমশালী দ্বিগ্মীজয়ী  নৃপতি ছিলেন। সহজ...

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন : বাংলাদেশের পুনর্জন্মের ভিত্তি

অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানঃ বাঙালির স্বাধীন জাতিসত্তা তথা পৃথক জাতি রাষ্ট্রের চেতনার অন্যতম ভিত্তি যদি বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনকে ধরে নেওয়া হয় তাহলেও ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় বাঙালির রাষ্ট্রভাষা বাংলা হবে, এর বিরোধীদের মধ্যে বাংলা ভাষাভাষী মানুষের সংখ্যাও কম ছিল না। তাদের অনেকে আমাদের রাজনীতিতে নেতৃত্বস্থানীয়ও ছিলেন। খাজা নাজিমউদ্দিন ও নুরুল আমিনের নাম সবাই জানলেও ভেতরে ভে...

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন, ১৯৮১

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন, ১৯৮১

শেখ হাসিনা : গণতন্ত্রের মানসকন্যা ও পরিবর্তনের অগ্রদূত

তিনি জাতিকে নতুন এক আশা দিয়েছেন, সেই আশার নাম, রুপকল্প-২০২১, বাংলাদেশকে একটি মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত করার সেই আশা। তিনি স্বপ্ন দেখিয়েছে সব বাংলাদেশীকে, এক ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন যেখানে সর্বাধুনিক তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ জনশক্তি থাকবে। এবং স্বাধীনতার চার দশক পরে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে জাতিকে কলংকমুক্ত করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন অনুকরনীয় নেতৃত্ব-খাদ্য নির...