চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে চিকিৎসকদের সাথে আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা

1368

Published on জানুয়ারি 19, 2021
  • Details Image

আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: রেজাউল করিম চৌধুরী’র সমর্থনে চিকিৎসকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১ টায় অনুষ্ঠিত উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা: রোকেয়া সুলতানা,বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএমএ মহাসচিব ডা: এহতেশামুল হক চৌধুরী,মহাসচিব,বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন।মতবিনিময় সভার সভাপতিত্ব করেন বিএমএ চট্টগ্রামের সহ- সভাপতি ডা: সেলিম আকতার চৌধুরী ও সভা পরিচালনায় ছিলেন ডা: বিদ্যুৎ বড়ুয়া।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ডা: মোতাহার চৌধুরীসহ চিকিৎসকগণ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএমএ মহাসচিব ডা: এহতেশামুল হক চৌধুরী বলেন,বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আমলে দক্ষিন এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ একটি মডেলে পরিণত হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে ডা: সেলিম আকতার চৌধুরী বলেন,নগর এলাকায় চিকিৎসা সেবা ও জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে সিটি কর্পোরেশনের ভূমিকা অপরিসীম। তাই আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: রেজাউল করিম চৌধুরী কে নৌকা প্রতীকে ভোট দানের আর্জি জানান এই চিকিৎসক নেতা।

প্রধান অতিথি ডা: রোকেয়া সুলতানা চিকিৎসক সমাজের উদ্দেশ্যে বলেন,আগে এফসিপিএস করতে পাকিস্তানে গিয়ে পরীক্ষা দিতে হতো,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবই এদেশে চিকিৎসকদের জন্য উচ্চশিক্ষার পরীক্ষা দেশে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন। এদেশে অর্থোপেডিক কোর্সও চালু করেছিলেন বঙ্গবন্ধু।তিনি আরো বলেন,বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই এদেশে চিকিৎসা ব্যবস্থার পরিবর্তনের শুরু হয়েছিল যা জননেত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমে বিকশিত হয়েছে ও হচ্ছে।

অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, আমাদের একজন শেখ হাসিনা আছেন বলেই বাংলাদেশ আজ একটি জায়গায় দাঁড়িয়েছে।আমি মনে করি আওয়ামী লীগের ভোট চাওয়ার কোন প্রয়োজন নাই। প্রশ্ন করতে পারেন কেন এমন বলছি,আমি এমন বলছি কারণ,নৌকায় ভোট দিয়ে এদেশের মানুষ কোনদিন প্রতারিত হননি,বঞ্চিত হননি,এটা এদেশের মানুষ জানেন এবং বোঝেন।তাইতো তারা নৌকায় ভোট দেন,আওয়ামী লীগকে সমর্থন করেন।

এসময় তিনি ১৯৭০ সালের নির্বাচনের কথা স্মরণ করে বলেন, ১৯৭০ সালে বঙ্গবন্ধুকে এই জনপদের মানুষ ভোট দিয়েছিলেন, নৌকাকে বিজয়ী করেছিলেন তাই আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম। তাই নৌকায় ভোট দেওয়া কখনো বৃথা যায়নি।তাই ইতিহাসের পরিক্রমায় জনগণ সবসময় আওয়ামী লীগকেই বেছে নিবেন।তবে তাই বলে আমাদের বসে থাকলে চলবে না। আমরা আমাদের কাজ চালিয়ে যাবো,দ্বারে দ্বারে যাবো।আর জনগণকে সাথে নিয়েই নৌকার বিজয় নেত্রীকে উপহার দিবো ইনশাআল্লাহ।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত