প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে নাটোরে অসহায়, দুঃস্থ ও ছিন্নমূল মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী ও বস্ত্র বিতরণ

796

Published on সেপ্টেম্বর 28, 2022
  • Details Image

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগকে ভয় দেখাবেন না। পাকিস্তানি আর্মির বুলেট ও জিয়ার দুঃশাসন আওয়ামী লীগকে ঘরে তুলে দিতে পারেনি। বিএনপির নেতারাও পারবে না। লাঠিতে পতাকা বেঁধে তারা আন্দোলনের ডাক দিচ্ছেন। এখন ঘোষণা করছেন লাঠি বড় করতে। আওয়ামী লীগকে ভয় দেখিয়ে লাভ হবে না। 

আজ সকালে নাটোর জেলার সদর উপজেলার কাদিম সাতুরিয়া রিভারভিউ আশ্রয়ন প্রকল্পে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে অসহায়, দুঃস্থ ও ছিন্নমূল মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী ও বস্ত্র বিতরণ শেষে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন। 

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল বলেন, বিএনপির নেতারা তাদের মিছিলে পতাকার লাঠি বড় করার নির্দেশ দিচ্ছেন আওয়ামী লীগকে ভয় দেখানোর জন্য, কিন্তু ভোট চোর, ভোট ডাকাত, অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী, দুর্ণীতিতে চ্যাম্পিয়ন, জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক, পাকিস্তান প্রেমী বিএনপি জামাত জানে না যে পাকিস্তানের শক্তিশালী সেনাবাহিনীর বুলেটও আওয়ামী লীগকে রাজপথ ছেড়ে ঘরে তুলতে পারেনি। কারণ আওয়ামী লীগের নেতা ছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব, যিনি কখনো কারো কাছে মাথানত করেনি, আর এখন নেতৃত্ব দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর তনয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা যিনি বাবার মতো সকল ষড়যন্ত্র, সকল অপশক্তিকে মোকাবেলা করে মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠা করে আজকে বাংলাদেশেকে উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তরিত করেছেন।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা দেশকে দেউলিয়া করে নাই, বরং শেখ হাসিনাই দেশকে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছেন। শেখ হাসিনাই আজ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিয়েছেন, বয়স্কদের ভাতা দিচ্ছেন, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তাদের ভাতা দিচ্ছেন, প্রতিবন্ধীদের ভাতা দিচ্ছেন, বছরের শুরুতে একসেট নতুন বই দিচ্ছেন, পদ্মা সেতু সহ বড় বড় মেগা প্রকল্প করে বাঙালির সক্ষমতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বিশ্বে। আজকে বিএনপি ছাত্রলীগ নিয়ে কথা বলে, বিএনপি শেখ হাসিনার শাসনামল নিয়ে কথা বলেন কিন্তু আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজের চেহারাটার দিকে একবারও তাকান না, যদি নিজের চেহারাটার দিকে একবারও তাকাতেন তাহলে এইভাবে শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার, অসত্য বক্তব্য জাতির সামনে দিতে লজ্জাবোধ করতেন। কিন্তু লন্ডনে ক্যাসিনো-জুয়ার আসরে বসে দুর্ণীতির বরপুত্র তারেক জিয়ার নির্দেশে  বিএনপির নেতারা পাগলের প্রলাপ বকছেন, সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছেন, অপ-প্রচার করছেন, ষড়যন্ত্র করছেন। 

এসএম কামাল হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও শেখ হাসিনার সম্পর্কে বোঝার ক্ষমতা বিএনপির নাই। কারণ বিএনপি হচ্ছে পাকিস্তানি, তালেবানি, মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী, সাম্প্রদায়িক শক্তির প্রতিনিধিত্ব করে। ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ নিয়ে বিএনপির নেতারা বক্তব্য দিচ্ছেন, কিন্তু ইডেন কলেজের ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করেছেন এবং কয়েকজনকে স্থায়ী বহিষ্কার করেছেন। বিএনপির নেতারা কি জবাব দেবেন, তাদের আমলে ইডেন কলেজের ১৮ হাজার ছাত্রী সারারাত রাস্তায় বসে আর্তনাদ করেছে, ছাত্রদলের দু'গ্রুপ তাদের ভিতরে ঢুকতে দেননি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন্নাহার হলে পুলিশ এবং ছাত্রদলের নেতারা ঢুকে ছাত্রীদের ওপর নির্মম হামলা করেছেন।

শেখ হাসিনা কোন অন্যায়কারীকে ক্ষমা করেন না। শেখ হাসিনা মানুষের ভোটের অধিকার হরণ করেন নাই বরং মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন, আজকে যে স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স এবং ছবিযুক্ত ভোটার লিস্ট এটা শেখ হাসিনারই অবদান। গণতন্ত্রকে হত্যা করেছেন জিয়া থেকে খালেদা জিয়া, ভোটের অধিকার হরণ করেছে জিয়া থেকে খালেদা জিয়া, দেশটাকে ধ্বংস করেছেন জিয়া থেকে খালেদা জিয়া। 

মতবিনিময় সভা শেষে সম্প্রতি হত্যার শিকার নাটোর জেলার নলডাঙ্গা উপজেলা ছাত্রলীগের নেতা জীবনের কবর জিয়ারত এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আর্থিক সাহায্য তুলে দেন এস এম কামাল হোসেন। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক, শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম রমজান, যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি কেহেলী কুদ্দুস মুক্তিসহ অনেকে।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত