বিএনপির আন্দোলন ইতিমধ্যে ‘ফ্লপ’ করেছে

359

Published on জানুয়ারি 1, 2023
  • Details Image

বিএনপি আবারও আগুন-সন্ত্রাসের রাজনীতি শুরু করেছে দাবি করে আওয়ামী লীগের নেতারা বলেছেন, বিএনপি সন্ত্রাস করলে, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ঘরে বসে থাকবেন না। বিএনপির আন্দোলন ইতিমধ্যে ‘ফ্লপ’ করেছে। বিএনপির নৈরাজ্য জনগণ আর মেনে নেবে না।

আজ শুক্রবার রাজধানীর শ্যামলী স্কয়ার শপিং মলের সামনে আয়োজিত সমাবেশে দলের নেতারা এসব কথা বলেন। ঢাকায় বিএনপির গণমিছিলকে সামনে রেখে এ সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান বলেন, ‘বিএনপিকে আমরা চিনি। বারবার ভিন্ন নামে তারা সন্ত্রাসী কার্যক্রম করেছে। বিএনপি উন্নয়ন চায় না, এটি প্রমাণিত। আগামী নির্বাচনের আগে বিএনপি আরও গুজব ছড়াবে, মিথ্যা ছড়াবে, জনগণকে বোকা বানাতে চেষ্টা করবে। জনগণ আর বোকা হবে না।’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেন, আগামী নির্বাচনে জিততে হলে আওয়ামী লীগের প্রত্যেক নেতা-কর্মীকে ঘরে ঘরে যেতে হবে। মানুষের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতে হবে। মানুষকে কষ্ট দেওয়া যাবে না, খারাপ আচরণ করা যাবে না।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, ২০২২ সাল বাংলাদেশের মাইলফলকের বছর। পদ্মা সেতু হয়েছে, মেট্রোরেল হয়েছে। এই উন্নয়ন বিএনপির সহ্য হচ্ছে না। তারেক জিয়ার নেতৃত্বে আবারও বিএনপি-জামায়ত ষড়যন্ত্র শুরু করেছে।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি বজলুর রহমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ উন্নয়ন করলে, বিএনপির গা জ্বলে যায়। গণতান্ত্রিক ভাষায় কথা বললে, আন্দোলন করলে বিএনপিকে স্যালুট দেব। জ্বালাও-পোড়াও করলে, জনগণের জানমালের ক্ষতি করলে ফাডাইয়া লামু।’

বিএনপির গণমিছিলের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সাতটি স্থানে, দক্ষিণ আওয়ামী লীগ দুই স্থানসহ নয়টি স্থানে সমাবেশ ও অবস্থান নেওয়ার ঘোষণা দেয়। জুমার নামাজের পর বিভিন্ন এলাকা থেকে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে শ্যামলী শপিং মলের সামনে জড়ো হন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ উত্তরা, মহাখালী, ফার্মগেট, গাবতলী, মিরপুর ১০ নম্বর গোলচত্বর এবং রামপুরা-বাড্ডা ইউলুপ এলাকায় সমাবেশ ও পাহারা দেয়। আর ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ও যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তায় সমাবেশ করে।

মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুস সাত্তারের সভাপতিত্বে সমাবেশে আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা, স্থানীয় সংসদ সদস্য সাদেক খান, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত