২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবসঃ ভয়াল কালরাত্রির গণহত্যা

মানব ইতিহাসের অন্যতম বর্বর নিষ্ঠুরতম গণহত্যার একটি রাত। একাত্তরের ২৫শে মার্চের সেই রাত। গভীর রাতের নিস্তব্ধতার মধ্যে হঠাৎই ট্যাংকের গর্জন শুনতে পায় শহরবাসী। পাখির ডাক নয়, বাংলাদেশ তথা তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের লাখ লাখ জনসাধারণ জেগে ওঠে অনবরত গোলাগুলির শব্দে। বিশ্ব ইতিহাসের নৃশংসতম এবং বৃহত্তম এক গণহত্যার সূচনা হয় এভাবেই, যা পরিচালনা করেছিল তৎকালীন পাকিস্তানের সাম...

যার নামের উপর কখনো ধুলো জমতে দেয় না হাওয়াঃ এম. নজরুল ইসলাম

তাঁর জাদুকরি সম্মোহনী শক্তিই বাঙালি জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেছিল গুলির সামনে বুক পেতে দিতে। তিনি বরাভয় দিয়েছিলেন বলেই ভয় পায়নি জাতি। ইতিহাসের সেই বরপুত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, আমাদের জাতির জনক। আজো তিনি আমাদের প্রেরণার উৎস। আমাদের সত্ত্বায় মিশে আছেন তিনি। আজ ১৭ মার্চ এই মহান বাঙালির জন্মদিন। বাঙালির আত্মপরিচয়ের প্রতিক তিনি। একজন মানুষ যে দেশ ও জাতির সমার্থক ...

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও বঙ্গবন্ধু

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও বঙ্গবন্ধু

বঙ্গবন্ধুর জীবন সংগ্রাম

বঙ্গবন্ধুর জীবন সংগ্রাম

বাংলাদেশের স্বাধীনতার দুর্জয় আকাঙ্ক্ষার প্রতীক বঙ্গবন্ধু

ড. শিরীন আখতারঃ ধর্মীয় জাতিসত্তাবিশিষ্ট পাকিস্তান নামক রাষ্ট্রের অধীনে শাসিত হওয়ার প্রাথমিক অবস্থা থেকে বাঙালি জাতির অনেকেই তাদের কী অন্ধকারময় ভবিষ্যৎ রচিত হতে যাচ্ছে সে সম্পর্কে অনেকটা আঁচ করতে পেরেছিল। যতই দিন যাচ্ছে ততই তাদের উপলব্ধি তীব্র হতে শুরু করে। রাজনীতিক থেকে শুরু করে ছাত্রসমাজ, শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী, সশস্ত্র বাহিনী ও অন্যান্য সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে বিভিন্ন শ্র...

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের কৃষি

ড. মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়াঃ বাংলাদেশ কৃষিপ্রধান দেশ। গত শতাব্দীর সত্তরের দশকে কৃষিই ছিল এ দেশের অর্থনীতির প্রধান খাত। এ দেশের জনসংখ্যার সিংহভাগ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কৃষির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। এই কৃষিকে দেখে দেখেই বেড়ে উঠেছেন বঙ্গবন্ধু। খুব কাছে থেকে প্রত্যক্ষ করেছেন কৃষিকে অবলম্বন করা আধপেটা-একপেটা কৃষক আর তাদের দারিদ্র্যপীড়িত জীবন। ১৯৪৩ সালের দুর্ভিক্ষের ভয়াবহ চিত্র ...

৭ মার্চের ভাষণ : পটভূমি ও তাৎপর্য

৪৯ বছর আগে ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু তাঁর জীবনের শ্রেষ্ঠ ভাষণটি দিয়েছিলেন। ১০ লক্ষাধিক লোকের সামনে পাকিস্তানি দস্যুদের কামান-বন্দুক-মেশিনগানের হুমকির মুখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ওই দিন বজ্রকণ্ঠে ঘোষণা করেন- ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ কী পরিস্থিতিতে বঙ্গবন্ধু সেই ইতিহাস বিখ্যাত ভাষণ দিয়েছিলেন? ১৯৭০-এর...

বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ

ভাইয়েরা আমার, আজ দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। আপনারা সকলে জানেন এবং বোঝেন আমরা আমাদের জীবন দিয়ে চেষ্টা করেছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় আজ ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, রংপুরে আমার ভাইয়ের রক্তে রাজপথ রঞ্জিত হয়েছে। আজ বাংলার মানুষ মুক্তি চায়, বাংলার মানুষ বাঁচতে চায়, বাংলার মানুষ অধিকার চায়। কি অন্যায় করেছিলাম? নির্বাচনের পরে বাংলাদেশের ম...

৭ই মার্চঃ বাঙালি জাতির চিরন্তন অনুপ্রেরণা

সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা এই বাংলাদেশের মানুষের সকল আশা আকাংক্ষার মূলে ছিল একটি স্বাধীন জাতি হিসেবে পৃথিবীর মানচিত্রে মাথা তুলে দাঁড়ানোর বাসনা। কন্ঠস্বরে প্রকাশ হওয়ার আগে এই আকাঙ্ক্ষা বুকে নিয়েই কাটিয়েছে প্রায় আড়াইশো বছর। অবশেষে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ এর তপ্ত দুপুরে আসে সেই পরম আরাধ্য স্বাধীনতার ঘোষণা। বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা, আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পাকিস্তান ...

বঙ্গবন্ধুঃ একজন বিরল বিশ্বনেতৃত্বের নাম

- অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বঙ্গবন্ধু আর বাংলাদেশ-একই সূত্রে গাঁথা। অধিকারবঞ্চিত বাঙালিজাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে একটি স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছেন তিনি। ভঙ্গুর অর্থনীতি থেকে একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে গড়ার কাজে হাত দেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আজীবন এই মানুষটি বিশ্বের শোষিত মানুষের কথা ভেবেছেন, তাদের অধিকার আদায়ে সংগ্রাম করেছেন। তিনি বাঙালির না বলা কথা ব...

মুক্তির মহাযাত্রায়

দিল্লিতে ৮ জানুয়ারি ১৯৭২-এর সূর্যোদয় হলো প্রাত্যহিক স্বাভাবিকতায়। সময়ের ব্যবধানে লন্ডনে তখন গভীর রাত। দুই মহাদেশ ভরা অন্ধকার চিরে পিআইএর বিশেষ বিমানটি তখন লন্ডনের পথে। দিল্লির চাণক্যপুরীর ছককাটা সুপ্রশস্ত জনপথ, তাদের সদিচ্ছাবাহী নামফলকের সারি আর সুবিন্যস্ত উদ্যানরাজি কুয়াশার আবরণ থেকে ধীরে ধীরে চোখ মেলল। জনবিরল জনপথে নির্ধারিত ক্রমিকতায় অবতীর্ণ হলো সাইকেল, স্কুটার, ...

বন্দিজীবন, মুক্তির আলো

- সোহরাব হাসান ‘শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন এমন ব্যক্তি, যাঁকে ছাড়া বাংলাদেশের ইতিহাস লেখা যায় না, এমনকি কল্পনাও করা যায় না। ’ এ রকম মন্তব্যই করেছিলেন ১৯৭২ সালে তাঁর সাক্ষাৎকার নেওয়া বিদেশি সাংবাদিকেরা। ১৯৭২ সালে পাকিস্তানের জেলখানা থেকে স্বাধীন বাংলাদেশে আসার অব্যবহিত পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কয়েকজন বিদেশি সাংবাদিককে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন। এর...

মুক্ত দেশে স্বাধীন নেতা

- জেএন দীক্ষিত নিরাপত্তা পরিষদের মিটিং থেকে ২৪ ডিসেম্বর আমি ফিরে এলাম। ১৯৭২ সালের ৭ জানুয়ারি সকালবেলা আমাদের গোয়েন্দা সূত্র থেকে খবর পেলাম, শেখ মুজিবুর রহমানকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তিনি আপাতত জানা যাচ্ছে না এমন এক জায়গায় চলে গেছেন এবং সেখান থেকে ঢাকায় ফেরার বন্দোবস্ত করছেন। পাকিস্তানি ইন্টারন্যাশনাল কলের ওপর নজরদারি করে এবং অন্যান্য সূত্রের বরাতে ওই দিনই বিকেল ...

১২ জানুয়ারি ১৯৭২ঃ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহন করেন বঙ্গবন্ধু

১২ জানুয়ারি বঙ্গভবনে বিপুল করতালি, জয় বাংলা ও বঙ্গবন্ধু জিন্দাবাদ ধ্বনির মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। শপথ নেওয়ার পর তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে ১১ সদস্যের মন্ত্রিসভার নাম দেন। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার আগে বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী তাকে আমন্ত্রণ জানিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু জাতির জনক ও অবিসংবাদিত নেতা, যার ওপর জনসাধারণের পূর্ণ আস্থা রয়েছে...

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস: অন্ধকার থেকে আলোর পথে

বইছিল স্বাধীনতার সুবাতাস। শ্লোগানে মুখরিত চারদিক, আকাশ-বাতাস, জোর গলায় উচ্চারিত হচ্ছে, “জয় বাংলা”, তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দর জুড়ে যেন অনুরণিত হয়ে চলেছে, প্রতিধ্বনিতে একাকার হালকা শীতের আমেজময় সেই ঐতিহাসিক ১০ই জানুয়ারী, ১৯৭২ সাল। বেলা দ্বিপ্রহরের পরপরই হাজার দশেকেরও বেশি সদ্য মুক্তির স্বাদ পাওয়া আবেগে উদ্বেলিত বাঙালি সেখানে জড়ো হয়েছিলেন, যদিও তার...

নতুন কমিটিকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শ্রদ্ধা

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবুর রহমা‌নের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নি‌বেদন ক‌রে‌ছে আওয়ামী লী‌গের নতুন ক‌মি‌টি। দলের সভাপ‌তি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনার নেতৃত্বে নেতারা শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে ধানম‌ন্ডির ৩২ নম্ব‌রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নি‌বেদন করেন। এসময় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ...

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কর্মসূচি

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস, বাঙালি জাতির আত্মগৌরবের দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের অধীনে পরিচালিত দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে চূড়ান্ত বিজয় অর্জনের মধ্য দিয়ে বিশ্ব-মানচিত্রে অভ্যুদ্বয় ঘটে স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ রাষ্ট্রের। ৩০ লাখ শহীদের আত্মদান আর দুই লক্ষ ম...

আগামী দিনের আওয়ামী লীগ

আবদুল মান্নানঃ দেশের রাজনীতি অনেকটা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগবিরোধীদের মধ্যে বিভক্ত। এই বিভক্তি সম্ভবত শুরু হয়েছে ১৯৫৭ সালে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগ করে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি গঠন করার পর। আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর দেশের বৃহত্তম ও অন্যতম ঐতিহাসিক রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দুই দিনব্যাপী...

বঙ্গবন্ধুর প্রতি সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ বৃহষ্পতিবার ধানমন্ডির বঙ্গবন্ধু জাদুঘরের সামনে শোকার্ত মানুষের ঢল নেমেছে। স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ভোর থেকেই আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্...

রাসেল, রাসেল তুমি কোথায়?

শেখ হাসিনাঃ রাসেল, রাসেল তুমি কোথায়?রাসেলকে মা ডাকে, আসো,খাবে না, খেতে আসো।মা মা মা, তুমি কোথায় মা?মা যে কোথায় গেল--মাকে ছাড়া রাসেল যে ঘুমাতে চায় না ঘুমের সময় মায়ের গলা ধরে ঘুমাতে হবে। মাকে ও মা বলে যেমন ডাক দিত, আবার সময় সময় আব্বা বলেও ডাকত। আব্বা ওর জন্মের পরপরই জেলে চলে গেলেন।৬ দফা দেওয়ার কারণে আব্বাকে বন্দি করল পাকিস্তানি শাসকরা। রাসেলের বয়স তখন...

  • «
  • »